অনুপম রায়ের সুরে মাতল ঢাকা
  1. rakibchowdhury877@gmail.com : Narayanganjer Kagoj : Narayanganjer Kagoj
  2. admin@narayanganjerkagoj.com : Narayanganjer Kagoj : Narayanganjer Kagoj
অনুপম রায়ের সুরে মাতল ঢাকা
সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ১১:৫০ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
মৃত্যুর পর ঋণ নিয়ছেন ১৪ জন ফতুল্লায় অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার রূপগঞ্জে ছাত্রলীগ কর্মীকে কুপিয়ে জখম বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপে চ্যাম্পিয়ন নারায়ণগঞ্জ দলকে সংবর্ধনা নারায়ণগঞ্জে জমে উঠতে শুরু করেছে কোরবানির পশুর হাট ধলেশ্বরী নদী থেকে ইটবাঁধা মরদেহ উদ্ধার ফতুল্লায় শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী আল-আমিন গ্রেফতার ফতুল্লায় দূর্জয়-সিফাত বাহিনীর ৬ সদস্য গ্রেপ্তার সাইবার নিরাপত্তা আইন মত প্রকাশের অন্তরায় : টিআইবি এখন গরিবেরা তিনবেলা ভাত খায় আর ধনীরা খায় আটা : খাদ্যমন্ত্রী সামেদ আলী আমার শেল্টারে ছিলো না : শওকত আলী সোনারগাঁয়ের যাত্রীবাহী বাসে হঠাৎ আগুন চিন্তায় মোদি আট মাত্রার ভূমিকম্প হতে পারে ঢাকায় : ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী রূপগঞ্জে ওটিতে প্রসূতির মৃত্যু, ক্লিনিক ভাঙচুর

অনুপম রায়ের সুরে মাতল ঢাকা

নারায়ণগঞ্জের কাগজ ডেস্ক
  • প্রকাশিত সময় : শুক্রবার, ৭ জুলাই, ২০২৩
  • ৩৮৫ বার পঠিত
অনুপম রায়ের সুরে মাতল ঢাকা

উপস্থাপক যখন মাইক্রোফোনে ঘোষণা করছিলেন, ‘এখন মঞ্চে আসবেন অনুপম রায়’ আর তক্ষুনি পুরো হলরুমে যেন উচ্ছ্বাস ও উল্লাসের কল্লোল বয়ে গেল। অনুপম মঞ্চে এসেই গাইতে শুরু করলেন, ‘আমি আমি জানি জানি, চোরাবালি কতখানি…’ তখন অনুপমের কণ্ঠের সঙ্গে হাজার কণ্ঠ মিলিত হয়ে এক অদ্ভুত আনন্দময় সুর তৈরি করছিল।

থামলেন অনুপম। এরপরে মঞ্চের একেবারে সামনে এগিয়ে এলেন।

হলরুমে তখন বর্ণিল আলোকচ্ছটা এক মোহগ্রস্ত পরিবেশ তৈরি করেছে। অনুপম বললেন, ‘আজ থেকে ১৩ বছর আগে এখানে এসে আমি বলেছিলাম, বাড়িয়ে দাও তোমার হাত, তখন আমি মাত্র শুরু করেছি গান। তোমরা হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলে বলেই আজ আমি এই ১৩ বছর পর তোমাদের সামনে গাইতে পারছি। অনুপম গাইতে শুরু করলেন, ‘বাড়িয়ে তোমার হাত, আমি তোমার আঙুল ধরতে চাই…’ অনুপমের সুরের সঙ্গে মিলিত হয়ে যাচ্ছিল হাজারো কণ্ঠ…।

এই গানের সঙ্গে হাজারো কণ্ঠ থামল। অনুপম এবার বললেন, ‘আমার ভাগ্য যে আমি মাত্র তিনমাস আগেই বাংলাদেশে এসেছিলাম। নারায়ণগঞ্জে একটি ঘরোয়া কনসার্টে গেয়েছিলাম। আর তিন মাস পরেই তোমাদের সামনে গাইছি।’

এরপর একে একে গাইলেন, ‘গভীরে, ‘আমার চোখে ঠোঁটে গালে তুমি লেগে আছে’ ‘সোহাগে আদরে’ ‘আমি কি তোমায় বিরক্ত করছি‘, একটানা গেয়ে থামলেন। এরপর মাইক্রোফোন কাছে টেনে বললেন, ‘আমাদের বন্ধুত্ব নিয়ে এবার একটি গান গাইব, ‘কি প্রস্তুত তো?’ একসঙ্গে সকল কণ্ঠস্বর মিলিত হলো। অনুপম গাইলেন, ‘বন্ধু চল..’ শেষ গান হিসেবে সবচেয়ে জনপ্রিয় গান অটোগ্রাফ সিনেমার ‘আমাকে আমার মতো থাকতে দাও… ’

গান শেষে অনুপম মঞ্চ ত্যাগ করবেন। তার আগে বললেন, ‘আমি তোমাদের সঙ্গে একটা সেলফি নিতে পারি?’ হাজার হাজার তরুণ কণ্ঠ চিৎকার করে হাত তুলল। অনুপম নিজের মোবাইল ফোন এনে একটা সেলফি নিলেন। নিলেন ঢাকার এক স্মরণীয় সন্ধ্যাকে নিজের স্মৃতির হার্ডড্রাইভে। এরপর মঞ্চে উঠলেন অর্ণব।

ঢাকার ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি, বসুন্ধরায় থ্রি টাইমসের এই আয়োজনে শুধু তরুণ তরুণীরাই নন, সব বয়সের শ্রোতারাই উপস্থিত হয়েছিলেন। অনুপম মাতিয়ে রাখলেন তাঁদের দীর্ঘ সময়। আর সেই আনন্দময় সময়কে ঋদ্ধ করলেন অর্ণব। অনুপমের আগে মঞ্চে গান গেয়ে দর্শক-শ্রোতাদের মাতিয়ে রেখেছিল হাতিরপুল সেশন, মেঘদল ও পশ্চিমবঙ্গের ব্যান্ডদল তালপাতার সেপাই।

নিউজটি শেয়ার করুন :

আপনার মন্তব্য প্রদান করুন...

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..