1. rakibchowdhury877@gmail.com : Narayanganjer Kagoj : Narayanganjer Kagoj
  2. admin@narayanganjerkagoj.com : nkagojadmin :
শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৯:৫৫ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
ফতুল্লায় স্কুলের সীমানা প্রাচীর ধসে আহত ৩ মামা-ভাগ্নির হুমকিতে ঘরছাড়া মামলার বাদী ষড়যন্ত্রকারীরা জনস্রোতের কাছে নিষ্ক্রিয় : টিপু বাসায় এসে তৈমুরকে মিষ্টি খাওয়ালেন আইভী সোনারগাঁয়ে পুলিশের গাড়ি খাদে, দুই এসআই নিহত আইভীর বাসার সামনে নেতাকর্মীদের বিজয় উল্লাস নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনে আইভীর হ্যাটট্রিক জয় স্ত্রী ও শ্বশুরের প্রতারণার ফাঁদে স্বামী না’গঞ্জ রেলস্টেশনে ভয়ংকর খুনির মিউজিক ভিডিও হয়েছিল সাবেক মেম্বার নবু হোসেনের ছেলে মনির হোসেন গ্রেফতার নগরীতে আইভীর পক্ষে শ্রমিকলীগের বিশাল নির্বাচনী গনসংযোগ মেয়র আইভীর পক্ষে ফতুল্লা থানা শ্রমিকলীগের নির্বাচনী প্রচারনা নারায়ণগঞ্জবাসীকে নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানালেন কাজী আরিফ নারায়ণগঞ্জবাসীকে নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানালেন শাহ্ আলম নতুন বছরে নারায়ণগঞ্জবাসীকে মীর সোহেল আলীর পক্ষে মাসুমের শুভেচ্ছা

এখন থেকে ধর্ষণ প্রমাণে মেডিক্যাল রিপোর্ট মুখ্য নয়

নারায়ণগঞ্জের কাগজ
  • প্রকাশিত সময় : বৃহস্পতিবার, ১৫ অক্টোবর, ২০২০
  • ৪৭৪ বার পঠিত
এখন থেকে ধর্ষণ প্রমাণে মেডিক্যাল রিপোর্ট মুখ্য নয়

ধর্ষণ মামলায় মেডিক্যাল রিপোর্ট মুখ্য না বরং ভুক্তভোগীর সাক্ষ্য এবং পারিপার্শ্বিক অবস্থা বিবেচনায় আসামিকে সাজা দেয়া যাবে মর্মে রায় ঘোষণা করেছেন হাইকোর্ট। বুধবার (১৪ অক্টোবর) বিচারপতি রেজাউল হকের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রায় দিয়েছেন।

সেইসঙ্গে, ভুক্তভোগী দেরিতে মামলা করলে, সেটি মিথ্যা বলা যাবে না। যদিও ধর্ষণ মামলার সংজ্ঞায় বলা আছে মেডিক্যাল রিপোর্ট ছাড়া কোনোভাবেই সাজা দেয়া যাবে না আসামীকে। ধর্ষণ মামলা প্রমাণ করতে তাই অন্যতম অস্ত্র মেডিক্যাল রিপোর্ট। কিন্তু বুধবার হাইকোর্ট তার এক রায়ে জানিয়ে দিয়েছে এখন থেকে মেডিক্যাল রিপোর্ট ছাড়াও পারিপার্শ্বিক অবস্থা বিবেচনায় নিয়ে ধর্ষণের সাজা দেয়া যাবে।

২০০৬ সালে খুলনার দাকোপ থানায় তাসলিমা নামে ১৫ বছরের কিশোরী মামলা করতে যান। কিন্তু মামলা না নিয়ে সালিশের প্রস্তাব দেয় পুলিশ। পরবর্তীতে ভুক্তভোগীর বাবা আদালতে মামলা করেন। কিন্ত তাতেও পুলিশের চাপে হয়নি মেডিক্যাল পরীক্ষা। যে মামলায় আসামি ইব্রাহীম গাজীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড বহাল রেখে হাইকোর্ট বলেন বিলম্ব মানেই কোনো মামলা মিথ্যা নয়।

আদালত তার রায়ে বলেন, ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরী যেন বিচার না পায় সেজন্য খুলনার দাকোপ থানা পুলিশ সেসময় সব চেষ্টাই করেছিলো। সুপ্রিম কোর্টের সবশেষ পরিসংখ্যান অনুযায়ী, দেশে নারী ও শিশু নির্যাতনের বর্তমানে ১ লাখ ৭০ হাজার মামলা বিচারাধীন।

নিউজটি শেয়ার করুন :

আপনার মন্তব্য প্রদান করুন...

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..

error: Content is protected !!