1. rakibchowdhury877@gmail.com : Narayanganjer Kagoj : Narayanganjer Kagoj
  2. admin@narayanganjerkagoj.com : nkagojadmin :
শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ১০:২৪ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
ফতুল্লায় স্কুলের সীমানা প্রাচীর ধসে আহত ৩ মামা-ভাগ্নির হুমকিতে ঘরছাড়া মামলার বাদী ষড়যন্ত্রকারীরা জনস্রোতের কাছে নিষ্ক্রিয় : টিপু বাসায় এসে তৈমুরকে মিষ্টি খাওয়ালেন আইভী সোনারগাঁয়ে পুলিশের গাড়ি খাদে, দুই এসআই নিহত আইভীর বাসার সামনে নেতাকর্মীদের বিজয় উল্লাস নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনে আইভীর হ্যাটট্রিক জয় স্ত্রী ও শ্বশুরের প্রতারণার ফাঁদে স্বামী না’গঞ্জ রেলস্টেশনে ভয়ংকর খুনির মিউজিক ভিডিও হয়েছিল সাবেক মেম্বার নবু হোসেনের ছেলে মনির হোসেন গ্রেফতার নগরীতে আইভীর পক্ষে শ্রমিকলীগের বিশাল নির্বাচনী গনসংযোগ মেয়র আইভীর পক্ষে ফতুল্লা থানা শ্রমিকলীগের নির্বাচনী প্রচারনা নারায়ণগঞ্জবাসীকে নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানালেন কাজী আরিফ নারায়ণগঞ্জবাসীকে নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানালেন শাহ্ আলম নতুন বছরে নারায়ণগঞ্জবাসীকে মীর সোহেল আলীর পক্ষে মাসুমের শুভেচ্ছা

কাজী সালাউদ্দিনের হাতেই দেশের ফুটবল

নারায়ণগঞ্জের কাগজ
  • প্রকাশিত সময় : শনিবার, ৩ অক্টোবর, ২০২০
  • ৪৬০ বার পঠিত
কাজী সালাউদ্দিনের হাতেই দেশের ফুটবল

এক পক্ষের আশা নীরব ভোট বিপ্লবের, দেশের ফুটবল নেতৃত্বে পরিবর্তনের; অন্যদিকে কাজী সালাউদ্দিনের প্রত্যাশা টানা চতুর্থবারের মতো বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সভাপতি হওয়ার। নির্বাচনে সভাপতি পদে কাজী সালাউদ্দিনের প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন বাফুফের প্রাক্তন সহ-সভাপতি ও সাবেক ফুটবলার বাদল রায়। অসুস্থতার কথা বলে প্রথমে সরে দাঁড়ালেও গতকাল রাতে আবার নিজের প্রার্থিতার দাবি জানিয়েছেন বাদল রায়। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সভাপতি পদে আরও দাঁড়িয়েছিলেন সাবেক ফুটবলার ও কোচ শফিকুল ইসলাম (মানিক)। শেষ পর্যন্ত টানা চতুর্থবারের মতো সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন কাজী সালাউদ্দিন। আজ বাফুফে নির্বাচনে ৯৪ ভোট পেয়ে জয়ী হয়ে আরও চার বছরের জন্য দেশের ফুটবলের অভিভাবক বনেছেন কাজী সালাউদ্দিন।

চতুর্থ মেয়াদে সভাপতি হওয়ার পথে সালাউদ্দিন ভোট পেয়েছেন ৯৪টি। তাঁর অন্য দুই প্রতিদ্বন্দ্বী বাদল ৪০ ও শফিকুল পেয়েছেন একটি। নির্বাচনে মোট ভোট ছিল ১৩৯টি। এর মধ্যে জেলা ও বিভাগের ভোট ছিল ৭২টি। মোট ১৩৯ ভোটের মধ্যে ভোট পড়েছে ১৩৫টি। সালাউদ্দিনের সম্মিলিত পরিষদ থেকেই জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি হয়েছেন সালাম মুর্শেদী। একই প্যানেল থেকে এসেছে তিনজন সহসভাপতিও।

২০১৬ সালের নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি হয়েছিলেন সালাম মুর্শেদী। জাতীয় দলের সাবেক তারকা এই স্ট্রাইকারকে এবার ভোটের লড়াইয়ে চ্যালেঞ্জ জানিয়েছিলেন সমন্বয় পরিষদের আরেক সাবেক তারকা স্ট্রাইকার শেখ মোহাম্মদ আসলাম। মাঠের খেলায় আসলাম সালামের চেয়ে এগিয়ে থাকলেও ভোটের লড়াইয়ে জয়ী হয়েছেন সালাম মুর্শেদী। ৯১ ভোট পেয়ে টানা চতুর্থবারের মতো জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি হয়েছেন তিনি। তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী শেখ আসলাম পেয়েছেন ৪৪ ভোট।

নিউজটি শেয়ার করুন :

আপনার মন্তব্য প্রদান করুন...

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..

error: Content is protected !!