ফতুল্লায় গর্ভবতী নারীকে লাথি মেরে গর্ভের সন্তান নষ্ট করার অভিযোগ
  1. rakibchowdhury877@gmail.com : Narayanganjer Kagoj : Narayanganjer Kagoj
  2. admin@narayanganjerkagoj.com : Narayanganjer Kagoj : Narayanganjer Kagoj
ফতুল্লায় গর্ভবতী নারীকে লাথি মেরে গর্ভের সন্তান নষ্ট করার অভিযোগ
রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ০১:৩৬ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সাংবাদিক এনামুলের মাতার মৃত্যুতে আজমেরী ওসমানের শোক প্রকাশ হাতে লেখা বিশ্বের সর্ববৃহৎ পবিত্র আল-কুরআনের মোড়ক উন্মোচন যুবদল নেতা এখন তাতী লীগের সদস্য সচিব! পুলিশি হয়রানি বন্ধের দাবিতে বন্দর থানা ঘেরাও তাঁত শ্রমিক হত্যায় কারখানা মালিকসহ গ্রেপ্তার ২ রূপগঞ্জে পানিতে ডুবে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর মৃত্যু ফতুল্লায় বসতি এলাকায় গড়ে তুলেছে শূকরের খামার! গণপূর্ত বিভাগের এবার দেড়কোটির মহোৎসব : সংবাদ প্রকাশে তোলপাড়! নারায়ণগঞ্জের তিন উপজেলায় চেয়ারম্যান হলেন যারা সিল মারা ব্যালট নিয়ে ছবি তুলে আ’লীগ নেতার পোস্ট সোনারগাঁয়ে জাল ভোট দেওয়ায় যুবকের ৬ মাস কারাদণ্ড চেয়ারম্যান প্রার্থীর ভোট বর্জন, পুনরায় ভোটের দাবি জাল ভোট দেয়ার ঘটনায় দুই যুবককে ৬ মাসের কারাদণ্ড নারায়ণগঞ্জে দুদকের গণশুনানি ৬ জুন ঢাকার ক্লুলেস হত্যাকান্ডের প্রধান আসামী সিদ্ধিরগঞ্জ থেকে গ্রেপ্তার

ফতুল্লায় গর্ভবতী নারীকে লাথি মেরে গর্ভের সন্তান নষ্ট করার অভিযোগ

ফতুল্লা সংবাদদাতা
  • প্রকাশিত সময় : বৃহস্পতিবার, ১৬ মার্চ, ২০২৩
  • ১০৭ বার পঠিত
ফতুল্লায় গর্ভবতী নারীকে লাথি মেরে গর্ভের সন্তান নষ্ট করার অভিযোগ
বামে মৃত গর্ভের সন্তান ও ডানে ভুক্তভোগী স্বামী-স্ত্রী।

ফতুল্লায় পাওনা টাকা আদায়কে কেন্দ্র করে ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে লাথি দিয়ে বাচ্চা মেরে ফেলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ফতুল্লার পশ্চিম তল্লার জামাই বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় নির্যাতিত অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূ ফুলমতি বাদী হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগে ফুলমতি জানান, তার স্বামী মনতাজ মিয়া পশ্চিম তল্লা জামাই বাজারে কাঁচা তরকারীর দোকান নিয়া ব্যবসা করিয়া আসিতেছে। সে নিজ ব্যবসার জন্য একই এলাকার ইমান আলী`র (৫০) নিকট থেকে ১২শত টাকা মূল্য দিয়ে একটি ডিজিটাল পাল্লা কিনে। তবে পাল্লার টাকা নগদ ২৫০ টাকা প্রদান করে। বাকী টাকা একদিন পর দিবে বলে পাল্লাটি ক্রয় করে। পরদিন অর্থাৎ ৯ মার্চ সকাল ৯টার দিকে ইমান আলী দোকানে এসে বাদীর স্বামীর নিকট পাওনা টাকা দাবী করে। একটু অপেক্ষা করতে বলায় ইমান আলী ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। এ নিয়ে কথা কাটাকাটি হয় উভয়ের মধ্যে। এক পর্যায়ে ইমান আলী তার পুত্র শাকিল (১৯) সহ অজ্ঞাতনামা আরো ২-৩ জন বাদীর স্বামীকে দোকান থেকে টেনে হিচড়ে নামিয়ে পেটাতে থাকে। সংবাদ পেয়ে স্বামীকে বাঁচাতে ঘটনাস্থলে বাদী উপস্থিত হলে অভিযুক্তরা তাকেও মারধর করে এবং তার পেটে লাথি মারে। তাদের ডাক-চিৎকারে স্থানীয় পথচারী ও বাজারের দোকানীরা এগিয়ে এসে তাদেরকে গুরুতর আহতবস্থায় উদ্ধার করে খানপুর হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বাদীকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারনে গর্ভে থাকা শিশুটি মারা যায়।

এ বিষয়ে অভিযোগের তদম্তকারী কর্মকর্তা ফতুল্লা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক মফিজুল ইসলাম জানায়, অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে তদন্ত করা হয়েছে। অভিযুক্তদের কাউকে পাওয়া যায়নি। বিষয়টি আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে তিনি জানান।

নিউজটি শেয়ার করুন :

আপনার মন্তব্য প্রদান করুন...

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..