ফতুল্লায় স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগে স্বামী গ্রেফতার
  1. rakibchowdhury877@gmail.com : Narayanganjer Kagoj : Narayanganjer Kagoj
  2. admin@narayanganjerkagoj.com : Narayanganjer Kagoj : Narayanganjer Kagoj
ফতুল্লায় স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগে স্বামী গ্রেফতার
সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ১০:২৫ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
প্রায় অর্ধকোটি টাকার জাল নোটসহ গ্রেপ্তার ২ শ্রমিকদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধসহ আহত ৬০ ফতুল্লায় নতুন আতংক সোর্স মামুন! সোনারগাঁয়ে শিশুকে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা বিএনপি দিয়ে গঠিত তুষারধারা পঞ্চায়েত কমিটি নিয়ে হট্টগোল! না’গঞ্জে তীব্র গরমে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আরও ৭ দিন বন্ধ ঘোষণা রবিবার নারায়ণগঞ্জের যেসব এলাকায় গ্যাস থাকবে না আমি ক্যাসিনো ডন না, ষড়যন্ত্র করে ‘ফাঁসানো’ হয়েছে : সেলিম প্রধান বাসচাপায় বাবা-ছেলে নিহত, হাসপাতালে মা সাংবাদিকদের সাথে সর্বজনীন পেনশন স্কিম সংক্রান্ত অবহিতকরণ সভা নারায়ণগঞ্জে ৩ দিনের হিট অ্যালার্ট, বাড়বে অস্বস্তি মেয়র আইভীকে উৎখাতের হুমকি হেফাজত নেতার ফতুল্লায় গাঁজা-রামদাসহ দুইজনকে পুলিশে সোপর্দ করেছে এলাকাবাসী বাংলাদেশে এলো অনারের মিডরেঞ্জ ফ্ল্যাগশিপ এক্স৯বি অটোরিকশার ধাক্কায় ৩ বছরের শিশু নিহত

ফতুল্লায় স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগে স্বামী গ্রেফতার

নারায়ণগঞ্জের কাগজ ডেস্ক
  • প্রকাশিত সময় : বুধবার, ৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪
  • ২২৮ বার পঠিত
ফতুল্লায় স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগে স্বামী গ্রেফতার

ফতুল্লায় গৃহবধূকে হত্যার ২৪ ঘন্টার ব্যবধানে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত রক্তমাখা ছুরিসহ স্বামী আলী হোসেনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এরআগে রোববার রাতে সদর উপজেলার ফতুল্লার লাকী বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। সোমবার (৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে নগরীর খানঁপুর ৩’শ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল থেকে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত জেসমিন বেগম (৩৫) চাঁদপুর জেলার মতলব থানার দশানী গ্রামের মৃত হাফেজ গোলাম মোস্তফার মেয়ে। তিনি স্বামীর সঙ্গে লাকী বাজার এলাকায় দুই সন্তানসহ শ্বশুর বাড়িতে থাকেন।

এ ঘটনায় নিহতের ভাই মো. সামসুদ্দিন সৈয়াল বাদী হয়ে সোমবার দিবাগত রাত ১২ টার দিকে ফতুল্লা মডেল থানায় ৪ জনের নাম উল্লেখ্য করে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলার আসামীরা হলো- ফতুল্লা মডেল থানার কুতুবপুর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ সংলগ্ন মুন্সিবাড়ীর হাজী মোস্তফা মুন্সির পুত্র নিহতের স্বামী আলী হোসেন (৪৪), তার দুই ভাই আপেল মাহমুদ (৩৮), হাবিবি (৪৮) ও মিনু (৩২)।

জানা গেছে, নিহতের চারভাই প্রবাসী হওয়ার তার কাছে নানা অজুহাতে টাকা চাইতেন নিহতের স্বামী আলী হোসেন। এর আগেও জেসমিনকে টাকার জন্য মারধর করা হলে তিনি তার মেজো ভাইকে ঘটনা জানায়। এ নিয়ে রাতে তাদের মধ্যে বাকবিতন্ডা হয়। রোববার দিবাগত রাত আড়াইটা দিকে নিহতের স্বামীর ভাই আপেল মাহমুদ নিহতের পরিবারকে ফোন করে জানায় জেসমিন অসুস্থ তাই তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। পরে পরিবারে লোকজন সোমবার ভোর সকালে এসে দেখতে পায় হাসপাতালের ট্রলিতে জেসমিনের মৃতদেহ। নিহতের শরীরে আঘাতের চিহ্ন দেখে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে।

তারা জানান, তার বোন জেসমিন ৭ মাসের গর্ভবতী থাকা অবস্থায়ও তার উপর টাকার জন্য নানাভাবে নির্যাতন চালাতো স্বামী, শ্বাশুড়ি ও তাদের স্বজনরা। এরপর ৩ ধাপে ৮ লাখ, ৫ লাখ ও ৭ লাখ টাকা দিয়েও তার উপর নির্যাতন বন্ধ করতে পারেন নি। এছাড়াও কিছুদিন আগে আলী হোসেনের নামে যে টাকা রাখা হয়েছে তা জেসমিনের বাপের বাড়ির থেকে টাকা নিয়ে রেখেছে।

ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি নুরে আজম জানান, রোববার রাতে নিহতের শ্বশুর বাড়ির লোকজন ওই গৃহবধূ নগরীর খানপুর হাসপাতাল নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে সোমবার রাতে নিহতের ভাই বাদী হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় স্বামী সহ চারজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। মামলার প্রধান আসামি নিহতের স্বামীকে আমরা রাতেই গ্রেফতার করি। এবং তার স্বীকারোক্তি এবং দেখানো মতে ঘরের খাটের নিচ থেকে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ছুরি উদ্ধার করি। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে হত্যাকান্ডের কথা স্বীকার করেছে বলে তিনি জানান।

নিউজটি শেয়ার করুন :

আপনার মন্তব্য প্রদান করুন...

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..