1. rakibchowdhury877@gmail.com : Narayanganjer Kagoj : Narayanganjer Kagoj
  2. admin@narayanganjerkagoj.com : nkagojadmin :
রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০৭:০২ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
কুতুবপুর ইউনিয়ন ৯নং ওয়ার্ডের মনোনয়ন পত্র দাখিল করেছেন ইউনুস মিয়া আমি জনগনের সেবক হতে চাই : নাজমা বেগম বুড়িগঙ্গা নদীতে পড়ে মাদ্রাসাছাত্র নিখোঁজ ফতুল্লায় ইজিবাইক চালককে গলা কেটে হত্যা কুতুবপুর ইউনিয়ন ৮নং ওয়ার্ডের মনোনয়ন পত্র দাখিল করলেন খোকন মাষ্টার কুতুবপুর ৯নং ওয়ার্ডে জনপ্রিয়তার শীর্ষে মেম্বার পদপ্রার্থী ইউনুস মাষ্টার মনোনয়নপত্র জমা দিলেন আলাউদ্দিন হাওলাদার ফতুল্লা স্টেডিয়ামের জলাবদ্ধতা দূর করার উদ্যোগ আমি নৌকার মাঝি এবং আমার দল আওয়ামী লীগ : সেন্টু ফতুল্লায় বাড়িওয়ালার হামলায় ভাড়াটিয়া আহত শ্রমিক লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে ফতুল্লা থানা মটর শ্রমিক লীগের আনন্দ র‍্যালী ফতুল্লায় শ্রমিক লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে শ্রমিক নেতা পলাশের নির্দেশে আনন্দ র‍্যালী শারদীয় দূর্গাপূজা উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জবাসীকে শরীফুল হকের পক্ষে সঞ্জয়ের শুভেচ্ছা আবার সভাপতি হলেন সেলিম ওসমান রূপগঞ্জে হৃদয় হত্যাকান্ড : মুল আসামী আশিকসহ গ্রেফতার ২

ফতুল্লার শাহজাহান রোলিং এলাকায় সহদোরের জুয়া

নারায়ণগঞ্জের কাগজ ডেস্ক
  • প্রকাশিত সময় : বৃহস্পতিবার, ৭ অক্টোবর, ২০২১
  • ৫১ বার পঠিত
ফতুল্লার শাহজাহান রোলিং এলাকায় সহদোরের জুয়া

ফতুল্লার শাহজাহান রোলিং মিল এলাকায় দুই সহদোর মোহন-রাজনের নেতৃত্বে চলছে জমজমাট জুয়া। দীর্ঘদিন ধরে এই দুই সহদোর নানা কৌশলে জুয়ার আসর বসিয়ে মানুষকে সর্বশান্ত করছে।

স্থানীয়রা জানায়,পুলিশ প্রশাসনের নীরবতার কারণে ফতুল্লার শাহজাহান রোলিং মিল বাইতুন নাজাত জামে মসজিদ সংলগ্ন রাজনের রিকশার গ্যারেজে প্রকাশ্যে চলছে জমজমাট জুয়ার আসর। এই জুয়ার আসর নিয়ন্ত্রণ করছেন শাজাহান রোলিং মিলস এলাকার মৃত আলী আক্কাসের ছেলে রাজন ও মোহন।

সূত্র থেকে জানা যায়, রাজন ও সুমন রিকশার গ্যারেজের আড়ালে প্রকাশ্যেই জুয়ার বোর্ড পরিচালনা করছে। এতে করে এলাকায় চুরি, ছিনতাই, ডাকাতি সহ বিভিন্ন অপকর্ম বেড়ে চলছে। এসব আসরে প্রতি রাতে উড়ছে লাখ লাখ টাকা। শাজাহান রোলিং মিলস বাইতুন নাজাত মসজিদের পাশেই এলাকার স্থানীয় প্রভাবশালী সন্ত্রাসীরা এসব জুয়ার আসরের নিয়ন্ত্রক হয়ে উঠেছেন।

এদিকে মসজিদে নামাজ পড়তে আসা মুসল্লীদের যাওয়া-আসার ও ব্যাঘাত ঘটাচ্ছে জুয়ায় আশা লোকজনে জন্য। এলাকার লোকজন জুয়ার আসর বোনদের জন্য রাজন ও সুমনকে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করলে তারা বিভিন্ন ধরনের হুমকি-ধামকি প্রদান করছে। গত কয়েকদিনে শাহজাহান রোলিং মিলস এলাকা ঘুরে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।

এলাকাবাসীর ভাষ্য, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর তেমন কোনো ভূমিকা নেই। এলাকায় এতদিন ধরে প্রকাশ্যে জুয়ার আসর চলছে। পুলিশ যদি আগের মতো ভূমিকা পালন করত তাহলে কখনই প্রকাশ্যে এভাবে জুয়ার আসর চালাতে পারতো না। রজন ও সুমন কাউকে তোয়াক্কা না করে দিন দুপুর ও রাতে দিব্যি পরিচালনা করছে এ আসর। এতে করে এলাকার যুবকরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

ফতুল্লা থানা পুলিশ গত ৮ই মে রাত বারোটায় আটজন জুয়ারি নগদ টাকা জুয়া খেলার দুই বান্ডিল তাসসহ গ্রেপ্তার হয়। থানায় লিখিত ভাবে মুচলেকা দেওয়ার পরেও বন্ধ হয়নি দুই ভাইয়ের জুয়ার আসর। এলাকাবাসী জানায়, এব্যাপারে মোহনের বাবাকে বলার পরেও তারা চালিয়ে যাচ্ছে তাদের জুয়ার আসর। ফলে এলাকাবাসীর প্রশ্ন এই দুই সহদরের খুঁটির জোড় কোথায়? এদের বিরুদ্ধে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসী।

নিউজটি শেয়ার করুন :

আপনার মন্তব্য প্রদান করুন...

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..

error: Content is protected !!