1. rakibchowdhury877@gmail.com : Narayanganjer Kagoj : Narayanganjer Kagoj
  2. admin@narayanganjerkagoj.com : nkagojadmin :
মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট ২০২২, ০৪:৪৮ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
আমি চাই আপনাদের উন্নয়ন : শামীম ওসমান ফতুল্লায় জাতীয় শোক দিবস পালন বঙ্গবন্ধুর শাহাদাত বার্ষিকীতে যুবলীগ নেতা আজমত আলীর নানা কর্মসূচি আলীগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস পালন জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ফতুল্লা রিপোর্টার্স ক্লাবে দোয়া ফতুল্লায় যুবলীগ নেতা চুন্নুর উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর শাহাদাত বার্ষিকী পালন শ্রমিক নেতা আজিজুলের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর শাহাদাত বার্ষিকী পালন ফতুল্লায় মুজিবরের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর শাহাদাত বার্ষিকী পালন জাতীয় শোক দিবসে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে জেলা প্রশাসনের শ্রদ্ধাঞ্জলি জাতীয় শোক দিবসে ফরিদ আহম্মেদ লিটনের শ্রদ্ধাঞ্জলি প্রতিমন্ত্রীর মর্যাদা পাওয়ায় মেয়র আইভীকে পলাশের ফুলেল শুভেচ্ছা কুতুবপুরের মেম্বার বাবুল মিয়ার ব্যাপক অনিয়ম!! বঙ্গবন্ধুর শাহাদাত বার্ষিকীতে মিজানুর রহমানের বিনম্র শ্রদ্ধা শ্রমিক লীগ সভাপতি সোহেলকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ ফতুল্লায় যৌতুক মামলায় এডভোকেট গ্রেফতার

বন্যা দুর্যোগ মোকাবেলায় চেঞ্জ ফাউন্ডেশনের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

নারায়ণগঞ্জের কাগজ ডেস্ক
  • প্রকাশিত সময় : শনিবার, ২ জুলাই, ২০২২
  • ৬০ বার পঠিত
বন্যা দুর্যোগ মোকাবেলায় চেঞ্জ ফাউন্ডেশনের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

যুব-নেতৃত্বাধীন অলাভজনক, সৃজনশীল, মানব কল্যাণমুখী, অরাজনৈতিক, স্বেচ্ছাসেবী ও সমাজ উন্নয়নমূলক সংগঠন চেঞ্জ ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে সল্প পরিসরে সিলেট বন্যা কবলিত এলাকায় অসহায় মানুষের মধ্যে ত্রানসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। ২৯ ও ৩০ জুন এই কার্যক্রম নিজস্ব আর্থিক ব্যবস্থাপনায় পরিচালনা করা হয়। এ সময় বন্যা দূর্গত সিলেট জেলার কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার তেলিখাল ইউনিয়নে এবং ভোলাগঞ্জের বউ বাজার, টুকের বাজার এলাকার বানভাসি মানুষের পাশে দাড়ানোর সংকল্পে পরিবার প্রতি ৩ দিনের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

চেঞ্জ ফাউন্ডেশন কর্তৃক সিলেট বিভাগে ত্রানসামগ্রী বিতরণ কার্যক্রমে ভলেন্টিয়ার টীমের প্রধান সাব্বির আহমেদ তুহিন বলেন, আমরা যেসব এলাকায় সহযোগীতা নিয়ে গিয়েছি এখানকার মানুষ মূলত দিনমজুরী অথবা কৃষি কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করতো। তাদের ভিটেবাড়ী এখন আর কিছুই অবশিষ্ট নেই। তারা খুবই অসহায়ভাবে জীবন যাপন করছে। আশা করবো বিত্তশালী ও সামর্থবান ব্যক্তিবর্গ আরও ব্যপকভাবে অসহায়দের সহযোগিতায় এগিয়ে আসবেন।

চেঞ্জ ফাউন্ডেশনের নিজস্ব ভলেন্টিয়ারদের পর্যালোচনা মতে বন্যার এই ব্যাপক ক্ষতি সহজেই কাটিয়ে উঠা প্রায় অসম্ভব। যার জন্য প্রয়োজন স্থানীয় প্রশাসনের মাধ্যমে সুষম ত্রান বা পুনর্বাসন পরিকল্পনা এবং এর যথাযথ প্রয়োগ। সাহায্য প্রার্থীর সংখ্যা এত বেশী যে আমরা বিছিন্নভাবে যারা সাহায্য করছি তাতে সাময়িকভাবে উপকার হলেও স্থায়ীভাবে আমাদের মত বিচ্ছিন সহযোগীতায় সমাধান আসবে না। সাহায্যকারী টীম বা ব্যক্তিবর্গ যারা ত্রাণসামগ্রী নিয়ে যাবেন তাদের কাছে আমাদের অনুরোধ থাকবে তারা যেন স্থানীয় প্রশাসনের সাথে যোগাযোগ করে ত্রান বিতরণে যান। স্থানীয় প্রশাসনের কাছে আমাদের অনুরোধ, বন্যা পরবর্তী সময়েও যেন দীর্ঘদিন তাদের হেল্প ডেস্ক চালু রাখা হয়, যাতে করে তালিকা করে প্রতি ঘরে ঘরে প্রয়োজনীয় ত্রান সামগ্রী পৌঁছানো এবং পুনর্বাসন কাজ সহজ হয়। আশারাখি এই ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ সঠিক ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

নিউজটি শেয়ার করুন :

আপনার মন্তব্য প্রদান করুন...

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..

error: Content is protected !!