1. rakibchowdhury877@gmail.com : Narayanganjer Kagoj : Narayanganjer Kagoj
  2. admin@narayanganjerkagoj.com : nkagojadmin :
মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ০১:২৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
নববধূকে বটি দিয়ে হত্যা করেছিল স্বামী, ২ বছর পর স্বীকারোক্তি সোনারগাঁয়ে ইউএনওর ওপর হামলার চেষ্টা বিএনপি সম্প্রীতির রাজনীতি করে : খোরশেদ ফ্রান্স আরেকটি ক্রুসেড যুদ্ধ চায় : মানববন্ধনে পীর সাহেব জৌনপুরী ডিসি-এসপি ও ক্রীড়া সংস্থার সম্পাদকের সাথে জিম ওনার্স নেতাদের সাক্ষাত বন্দরে নিখোঁজের ১৭ ঘণ্টা পর গৃহবধূর রক্তমাখা লাশ উদ্ধার স্টিল মিলে বিস্ফোরণ : দুই ব্যবস্থাপকসহ ৪ কর্মকর্তা গ্রেফতার রূপগঞ্জে স্টিল মিলে বিস্ফোরণ, দগ্ধ আরো ৩ জনের মৃত্যু ফতুল্লায় প্রেমের ফাঁদে ফেলে ধর্ষণ, গ্রেফতার ধর্ষক পলাশকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানালেন জাহাজ নির্মাণ শ্রমিক ইউনিয়নের নেতাকর্মীরা শ্রমিকনেতা পলাশের পিতার ২২তম মৃত্যবার্ষিকী আজ হিন্দু কল্যাণ সংস্থার উদ্যোগে পূজা উপলক্ষে বস্ত্র দান ফতুল্লার বাড়ৈভোগ পূজামন্ডপ পরিদর্শনে এএসপি মেহেদী ইমরান সিদ্দিকী নারায়ণগঞ্জে যত্রতত্র কিশোর গ্যাং বন্দরে ভাড়াটিয়াকে পিটিয়ে হত্যা, আটক ৩

সোনারগাঁয়ে নাবালিকাকে ধর্ষণের দায়ে ধর্ষক আটক

সোনারগাঁ সংবাদদাতা
  • প্রকাশিত সময় : রবিবার, ১১ অক্টোবর, ২০২০
  • ১৩৪ বার পঠিত
সোনারগাঁয়ে নাবালিকাকে ধর্ষণের দায়ে ধর্ষক আটক

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের সনমান্দি ইউনিয়নের পশ্চিম সনমান্দি গ্রামে চতুর্থ শ্রেণীতে পড়ুয়া এক ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে। ধর্ষিত ছাত্রীর বাবা শুক্রবার রাতে বাদি হয়ে মোঃ সোহেল মিয়া নামের একজনকে আসামী করে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন। ঘটনার পরদিন রাতে এলাকাবাসী ধর্ষককে গণধোলাই দেয়। আহত ধর্ষক সোহেলকে তার বাবা মা পুলিশে দিয়েছে। বর্তমানে ধর্ষক সোহেল পুলিশ পাহাড়ায় চিকিৎসাধীন রয়েছে।

মামলায় ওই ছাত্রীর বাবা উল্লেখ করেন, উপজেলার সনমান্দি ইউনিয়নের পশ্চিম সনমান্দি গ্রামে বসবাস করেন তারা। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে তার বড় মেয়ে মেঝ মেয়ের জন্য খাবার নিয়ে একটি স্থানীয় মাদ্রাসায় যায়। খাবার দিয়ে আসার পথে পশ্চিম সনমান্দি গ্রামের আবুল হাসেমের ছেলে মোঃ সোহেল মিয়া তার মেয়ের পথরোধ করে ভয় দেখিয়ে জোড়পূর্বক ধর্ষণ করে। পরে তার মেয়ে বাড়িতে এসে অসুস্থ হয়ে পড়লে ধর্ষনের বিষয়টি তার পরিবারকে জানায়। আহত ছাত্রীকে উদ্ধার করে সোনারগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দিয়ে সুস্থ্য করেন।

এ ঘটনায় তিনি বাদি হয়ে সোনারগাঁ থানায় একটি ধর্ষন মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর ওই রাতে এলাকাবাসী সোহেলকে আটক করে গণধোলাই দেয়। গণধোলাইয়ের পর ধর্ষক সোহেলকে অসুস্থ অবস্থায় তার বাবা মা পুলিশে সোপার্দ করে। বর্তমানে সোহেলকে পুলিশ পাহাড়ায় চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

সোনারগাঁ থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, স্কুল ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় মামলা হয়েছে। এলাকাবাসী ধর্ষককে গণধোলাইয়ের পর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে তাকে পুলিশ পাহাড়ায় চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। কিছুটা সুস্থ হলে তাকে আদালতে পাঠানো হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন :

আপনার মন্তব্য প্রদান করুন...

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..

error: Content is protected !!